মাছের বাক্সে হরিণের মাংস।

ডেক্স রিপোটঃ পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার আলিপুর মৎস্যবন্দর সংলগ্ন শিববাড়িয়া নদীতে একটি ট্রলার থেকে ২০ কেজি হরিণের মাংসসহ দু’জন শিকারিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। শুক্রবার (২০ জানুয়ারি) দিবাগত রাত বারোটায় এই অভিযান চালানো হয়। এ ব্যাপারে বন্যপ্রাণী (সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা) আইনে মহিপুর থানায় মামলা হয়েছে।গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, বরগুনা জেলার পাথরঘাটা উপজেলার দক্ষিণ চরদুয়ানী গ্রামের রুস্তম আলী হাওলাদারের ছেলে মোহাম্মদ মাসুম বিল্লাহ হাওলাদার (৪৪) এবং পটুয়াখালীর কুয়াকাটা পৌরসভার ৪ নম্বর ওয়ার্ড বাসিন্দা ফুলমিয়া হাওলাদারের ছেলে হাসান হাওলাদার (৩৫)।

মহিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা খন্দকার আবুল খায়ের জানান, গোপন সংবাদেরভিত্তিতে তার নেতৃত্বে মহিপুর থানার একটি টিম আলিপুর বন্দরের সুলিজ এলাকা সংলগ্ন শিববাড়িয়া নদীতে নোঙ্গর করা একটি কাঠের ট্রলারে মাছ হিমাহিত রাখার ককশিটের মধ্যে চারটি পলিথিন ব্যাগে মোড়ানো পাঁচ কেজি করে মোট ২০কেজি হরিণের মাংস জব্দ করে, এবং হরিণের মাংস বিক্রির সাথে জড়িত দু’জনকে গ্রেপ্তার করে। তিনি আরও জানান, গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা সংঘবদ্ধ হরিণ শিকারি দলের সদস্য। এরা দীর্ঘদিন ধরে পরস্পরের যোগসাজসে প্রশাসন ও বন বিভাগের চোখ ফাঁকি দিয়ে সুন্দরবন থেকে রশির ফাঁদ পেতে হরিণ শিকার করে পটুয়াখালীর মহিপুর, আলিপুর এবং বরগুনার পাথরঘাটা এলাকায় মাংস বিক্রি করে আসছিল।এ ব্যাপারে থানায় মামলা হয়েছে এবং গ্রেপ্তারকৃত দু’জনকে কোর্টে চালান দেওয়া হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *